এ কেমন ডাকাত _ মোসাঃ জান্নাতুল মাওয়া


এ কেমন ডাকাত
সরলা_ ও_ তার_ কাজের_ মেয়ে
মোসাঃ জান্নাতুল মাওয়া
চোর,ডাকাত ছিনতাইকারী, অজ্ঞানপাটি এমনি হাজারো মানুষের সমাগম এদেশে। একটু বলে নিই এসমস্ত গুনীজন কাকে বলে?
চোর
♠️
ইনি রাতে বা দিনে লোকচক্ষুর অগোচরে হাতের কাছে যা পান তাই নিয়ে সাধুর বেশে চলে যান।(অনেক সময় মনও নিয়ে যান)
ছিনতাইকারী
♠️
এ ভদ্রলোক রাতে বা দিনে সুযোগবুঝে রাস্তায় চলন্ত পায়ে হেঁটে অথবা কোন বাহনে থাকা ব্যক্তির সাথে যা থাকে খপ করে নিয়ে দেন ভোঁদৌড়-------
অজ্ঞানপাটি
♠️
ইনি রাস্তায় বা বাসায় যে কোন জায়গার ব্যক্তিকে ছলেবলে কৌশলে যেকোন পানীয়, পান, চকলেট, বিস্কুট, কলা ইত্যাদি খাবারের মধ্যে মালমশলা মিশিয়ে খাওয়ায়ে অথবা রুমাল বা টিসু্র মধ্যে কিছু সুগন্ধি মিশিয়ে তা অতি দরদ দিয়ে নাকে ধরে জ্ঞান হারিয়ে ফেলেন। তারপর তার কাছে থাকা জিনিস আরামে নিয়ে চলে যান।
ডাকাত
♠️
এবার আসলাম আসল জায়গায় ডাকাত নিয়ে কিছু লিখবার জন্য। ডাকাতদের কোন ভয়ডর নেই এরা আগের দিনে উড়োচিঠি দিয়ে ঢাকঢোল বাজিয়ে ঘোড়া নিয়ে এসে নাকি ডাকাতি করে নিয়ে যেত।বর্তমানে ডাকাতেরা নিজেদের ডিজিটাল করেছে সেটা কেমন?
ধরুন কোন বড়লোকের ছেলেকে কালো মাইক্রো বাসে উঠালো তারপর তাকে দিয়েই বাসায় ফোন দিয়ে মোটাঅংকের টাকা দাবি করল, ব্যাস, কোন খাটুনি ছাড়াই ঘরে বসে পেয়ে গেল লক্ষ লক্ষ টাকা এটাকে আধুনিক বাংলায় মুক্তিপণ বলা হচ্ছে।
অনেক ️ভদ্রলোকগন নিজেরা কখনো কোন বিশেষ বাহিনীর পোশাক পরে বাসায় ঢুকে সবাইকে বেঁধে রেখে যা পাচ্ছে সব নিয়ে যাচ্ছে এটাকেও ডিজিটাল ডাকাতি বললে মন্দ হবেনা------
(কোন কোন ডাকাতিয়া চোখও নাকি অনেক মনকে আবার ডাকাতি করে)।

এবার মূল ঘটনাটা বলার চেষ্টা করছি ঘটনা ঘটেছে আমার এক প্রতিবেশীর------
ঘটনা কোন পুরুষ দ্বারা না, ঘটেছে মহিলা দ্বারা। দুজন মহিলা এক বিশাল ধনী মানুষের দরজায় খ---ট্--খ---ট্- --খ---ট্।
বাসায় কেউ আছেন?
বাসার ভিতর থেকে আর এক মহিলা কে? ও ----আপা, আমরা আপনার খালাতো বোন আছে যে শেফালী, তার ননদের--- ননদের-- ননদ---।
বাসার মহিলা ছিল সহজ সরল তার একমাত্র ছেলে ছিল লালজলের পাটি মানে নেশায় আসক্ত -------
মহিলা সহজ মনে দরজাটা খুলে দিলো দেখলো দু'জন বোরকা পরা এবং নেকাপ দিয়া ভদ্রমহিলা। বাসার মালিক মহিলার নাম" সরলা"। সরলা বলছে আসুন আপা বসুন। আহারে কতদুর থেকে আসছেন একটু রেস্ট করেন আমি চা বানিয়ে নিয়ে আসি।ঐ দুজন বলছেন না বোন লাগবেনা বসুন একটু গল্প করি খাওয়াতে কী আসে যায়? আপনার তো অনেক কষ্ট একমাত্র ছেলে মাতাল,আমাদের অনেক কষ্ট হচ্ছে বোন। আপনার দুঃখে বুক ফেটে যাচ্ছে সরলা তখন হাউমাউ করে কেঁদে কেঁদে বলছেন কত বড় বড় ডাক্তার দেখালাম! না কিছুই হলো না গো
এরপর----
দু'জন মহিলার একজন বলছে বোন কোথায় চা বানাতে হবে আমায় বলো আমি বানিয়ে নিয়ে আসছি তোমরা দু'জন গল্প করো।
সরলা বলছে আপা আপনি আবার কষ্ট করবেন?
হ বোন তোমরা দুখের গল্প করো আমিই বানিয়ে আনি। ব্যাস, বিশাল সুযোগ হাত ছাড়া করা যাবেনা। সরলার স্বামী ছেলে সব বাইরে ফিরতে দেরি আছে অবশ্য কাজের মেয়েটা গেল ঐ মহিলার সাথে চা বানাতে------
কাজের মেয়েকে বলল তুই চিনি আন আমি এদিক দেখছি, যেমন কথা তেমন কাজ, মহিলা
চায়ের সাথে মেরে দিল" টা"আর সে চা কৌশলে সরলা আর কাজের মেয়েকে দিল প্রথমেই পান করতে, এরপর যা হবার তাই হলো এরা দুজন অজ্ঞান হয়ে পড়ে রইলো আর আগন্তুকদ্বয় তাদের বাইরে ফোনের অপেক্ষায় দাঁড়িয়ে থাকা পুরুষ সাথীদের নিয়ে বাসায় যা ছিল টাকাপয়সা, সোনাদানা সব ঠাণ্ডা মাথায় তাদের নিজস্ব গাড়িতে তুলে চম্পট -------।
সরলা আর কাজের মেয়ে আরামে ঘুমাচ্ছে -----।
স্বামী যখন বাসায় ফিরলো তখন মাথায় হাত
তো সম্মানিত পাঠকগন আপনারাই বলুন এটাকে কেমন ডাকাতি বলবেন?
এনালগ না ডিজিটাল?
আর এটা উপরের কোন পর্যায়ে পরে -------_
প্লিজ উত্তরটা না দিয়ে যাবেন না----

Post a Comment

এ কেমন ডাকাত _ মোসাঃ জান্নাতুল মাওয়া

এ কেমন ডাকাত সরলা_ ও_ তার_ কাজের_ মেয়ে মোসাঃ জান্নাতুল মাওয়া চোর,ডাকাত ছিনতাইকারী, অজ্ঞানপাটি এমনি হাজারো মানুষের সমাগম এদেশে। একটু বলে নি...

[blogger]

MD SAHIDUL

Contact Form

Name

Email *

Message *

Powered by Blogger.
Javascript DisablePlease Enable Javascript To See All Widget